মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

পারিলা ইউনিয়নের ইতিহাস

 

প্রতিষ্ঠাকাল: ১৩৭১ বাংলা

 

পারিলা ইউনিয়ন পরিচিতি: প্রাথমিক প্রর্যায়ে ইউনিয়ন প্রধান কে পঞ্চায়েত বলা হতো। তখন প্রথম পঞ্চায়েত ছিলেন বদিউজ্জামান তালুকদার। তাঁর বাড়ী পারিলা গ্রামে ছিল। যেহেতু পারিলা গ্রাম বড় আর তখনকার দিনে স্থায়ী ইউনিয়ন কাউন্সিল ছিল না, তিনাদের বাড়ীতেই অফিস করতেন। তিনার গ্র্রামের নামের সহিত নাম রাখিয়াছেন পারিলা ইউনিয়ন বোর্ড। পরবর্তীতে পাকিস্থান সরকার বোর্ড ঘরকে ইউনিয়ন কাউন্সিল নামকরণ করেন। এরপর পারিলার নুর মোহম্মদ তালুকদার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। সেই সময়ে নাম পারিলা ইউনিয়ন কাউন্সিল রাখেন। পরবর্তীতে মৌ: ইব্রাহীম হোসেন যখন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তখন ইউনিয়ন কাউন্সিলের স্হায়ী ঘর বা ভবন নিমাণ হওয়ার নির্দেশ হয়। নির্দেশ অনুযায়ী ভবনটি নির্মিত হয় বাংলা ১৩৭২ সালে। যেহেতু মৌ: ইব্রাহীম হোসেন তখন বতর্মান প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তিনার বাড়ী কৈপুকুরিয়া গ্র্রামে আর তিনার বাড়ীর পার্শ্বে হাট রামচন্দ্রপুর বাজার আর ইউনিয়নের মধ্যস্হান, সেই জন্য হাট রামচন্দ্রপুরেই পারিলা ইউনিয়ন কাউন্সিল ভবন নিমার্ণ করা হয় জনগণের সুবিধাত্বে। কিন্তু আজ পর্যন্ত ইউনিয়ন কাউন্সিলের নাম পারিলা রয়ে গেছে। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে তদানিত্বন সরকার বাহাদুর ইউনিয়ন কাউন্সিলের নাম পরিবর্তন করে ইউনিয়ন পরিষদ করেন,অদ্যবতি ঐ নামেই চলিতেছে।  ইউনিয়ন ভবন টি ইউনিয়নের মধ্যস্হানে হাট রামচন্দ্রপুর অবস্হিত।

 

ইউনিয়ন পরিষদের ইতিহাস

          ১। ১০০০বছর আগে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রজাতন্ত্র ছিলো (গুপ্ত আমল,পাল আমল,সুলতানী আমল)

          ২। ১৮৫৭ সালে ইংরেজদের অবসান।

         ৩। ১৭৭৩ সালে রাজস্ব আয়ের জন্য চিরস্থায়ী বনবস্তু (থোক বরাদ্দ) জমিদাররা বিভিন্নভাবে আদায় করতেন

          ৪। ১৮৭০ গ্রাম পঞ্চায়েত আইন।

          ৫। জেলা প্রশাসক গ্রাম পঞ্চায়েতদের মনোনয়ন দিতেন।

 

চলমান…….

           ১। চকিদারদের ভাতা ১০/-এবং সচিবের ভাতা৬৫/-

           ২। পঞ্চায়েতগন খানা প্রতি ৬ মাস আনা কর আদায় করতেন।

           ৩। লর্ড রিপন ১৮৮০-৮৫ সালে গঠন করেন ইউনিয়ন কমিটি(জনগনের নিবাচিত প্রতিনিধি)।

           ৪। ভোটের যোগ্যকা:  কিছু লেখা-পড়া জানা, কিছু জমি আছে এবং ১টাকাকর দেয়ার ক্ষমতা আছে।

           ৫। ১৯১৯ সাল পযন্ত চরে এই নিয়ম, তার পর ইউয়িন বোর্ড মনোনীত এবং নিবাচিত।

          ৬। উন্নয়ন মূলক কাজ শুরু হয় পুকুরের কচুরি পানা ও রাস্তার গোবর পরিস্কারের কাজ দিয়ে।

           ৭। ১৯৪৭ সালে উন্নয়নমূলক কাজ হিসেবে অন্তভূক্ত করা হয়, নলকুপ স্থাপন, পুকুর কাটা, ঘাট বাঁধানো এবং         স্ব্যাসেবা দেয়া।

 

সারমর্ম পরিসংখ্যান

            ১। ১৮৭০ সালে পঞ্চায়েত

            ২। ১৮৮৫ সালে ইউনিয়ন কমিটি /এ্যাক্ট।

            ৩। ১৯১৯ সালে ইউনিয়ন বোর্ড/এ্যাক্ট।

            ৪। ১৯৫৯ সালে ইউনিয়ন কাউন্সিল/আইয়ুব খানের ব্যাসিক ডেমোক্র্যাটি (ভোটর হবে শিক্ষিত ও বয়স ২১ বছর)

            ৫। ১৯৭২ সালে(১) আবার পঞ্চায়েত (২) মুসলিম পারিবারিক আইন/প্রে:অ:৭

            ৬। ১৯৭৩ সালে ইউনিয়ন পরিষদ/প্রে:অ:২২।

            ৭। ১৯৮৩ সালে ৩জন মহিলা সদস্য নমিনেশন পায়।।